মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

মাসিক সভার সিদ্ধান্তসমূহ

 

মাসিক সভার সিদ্ধান্ত সমূহ রেজুলেশন বহিতে সুন্দর ভাবে লিপি বদ্ধ করার পর প্রথমেই নোটিশ বোর্ডে কপি প্রদান করা হয় । এককপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয়ের বরাবর প্রেরণ করা হয়।বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসক সহ স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় বরাবর প্রেরণ করা হয়।যেমন বার্ষিক আয় -ব্যায় হিসাব সমূহ , ষান্মাসিক হিসাব ও কর্মপরিকল্পনা প্রতিবেদন বার্ষিক বাজেট ইত্যাদি যে সব ক্ষেত্রে সভার রেজুলেশন চাওয়া হয় সে সব ক্ষেত্রে ও সভার রেজুলেশন সংশ্লিষ্ট অফিস বরাবর প্রেরণ করা সহ জেলা প্রশাসক সহ স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় বরাবর প্রেরণ করা হয়।

 

মাসিক সভায় গৃহিত সিদ্ধান্ত সমূহ :

 

১. ইউপির আয়-ব্যয় সমূহ উপস্থাপন এবং ব্যয়ের খাত ও প্রয়োজনীয় স্কীম নির্বাচন , স্কীম বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়।

 

২. ইউপির কর্মচারীদের অফিসে উপস্থিতি কর্মকালীন সময়ে জনগন সহ পরিষদের সদস্যদের সাথে আচরণ ইত্যাদি  বিষয়ে আলোচনা   ও সিদ্ধান্ত গ্রহন।

 

৩. ইউনিয়নের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড নিয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

৪. সরকারী বিভিন্ন অনুদান নিয়ে প্রকল্প নির্বাচন , কমিটি গঠন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

৫. কর ধার্য্য , কর আদায় , ট্রেড লাইসেন্স ফি আদায় ইত্যাদি জোরদার করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

৬. জন্ম নিবন্ধন বিষয়ে জন সচেতনতা , বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ করা, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ বিষযে সচেতনতা সহ ইভটিজিং প্রতিরোধ , স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশন বিষয়ে ও বিশেষ সচেতনতা সৃষ্টি নিয়ে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

৭. গ্রাম আদালত বিষয়ে ও বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

৮. এলাকার আইন শৃংখলা নিয়ে ও সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

৯. ইউনিয়নের বিভিন্ন আয়ের খাত সমূহ এবং ইউনিয়ন পরিষদের বিভিন্ন দায় -দায়িত্ব নিয়ে ও সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

১০. এছাড়াও বিভিন্ন সময় সরকারী বিভিন্ন পরিপত্র জারী বিষয়ে ও আলোচনা হয়।

 

১১. জনগনের বিভিন্ন সেবা প্রসঙ্গ নিয়ে সভায় সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

১২. সদস্যদের ছুটি , কর্মচারীদের ছুটি,চেয়ারম্যান সাহেবদের ছুটি নিযে ও সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

১৩. ইউনিয়ন পরিষদের ১৩ টি ষ্ট্যান্ডিং কমিটির সভা , ওযার্ড সভা  ইত্যাদি নিয়মিত করার উপর ও বিস্তারিত আলোচনা করা হয় এবং নানাহ সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

১৪. সময় সময় প্রয়োজন অনুযায়ী সমস্যা উপস্থিত হলে তা সমাধানের জন্য বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

১৫. বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়ন নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

 

 

 

 

 


Share with :

Facebook Twitter